জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার
মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
সর্ব-শেষ হাল-নাগাদ: ৩১st জুলাই ২০১৭

মাননীয় বাণিজ্যমন্ত্রী

তোফায়েল আহমেদ, এমপি,

মাননীয় মন্ত্রী, বাণিজ্য মন্ত্রণালয়

 

 

বাণিজ্য মন্ত্রী মহোদয়ের জীবনবৃত্তান্ত

 

জনাব তোফায়েল আহমেদ ১৯৪৩ সালের ২২ অক্টোবর বাংলাদেশের দক্ষিণ-পশ্চিমে অবস্থিত দ্বীপ জেলা ভোলায় জন্মগ্রহণ করেন। মরহুম মৌলভী আজহার আলী তাঁর পিতা এবং মরহুম আলহাজ্ব ফাতেমা খানম তাঁর মাতা।

তিনি বাংলাদেশের ইতিহাসে অত্যন্ত প্রভাবশালী রাজনৈতিক নেতাদের অন্যতম এবং জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের একজন আদর্শ অনুসারী। ১৯৭১ সালে বাংলাদেশের স্বাধীনতা যুদ্ধে তিনি অন্যতম সংগঠক ও মুজিব বাহিনীর প্রধানদের একজন ছিলেন।

জনাব তোফায়েল আহমেদ ভোলা সরকারি উচ্চ বিদ্যালয় থেকে ১৯৬০ সালে মাধ্যমিক পাস করেন। তিনি ১৯৬২ সালে বরিশালের বিখ্যাত  ব্রজ মোহন (বিএম) কলেজ থেকে বিজ্ঞান বিভাগে উচ্চ মাধ্যমিক পাশ করেন এবং ১৯৬৪ সালে একই কলেজ থেকে বিজ্ঞানে স্নাতক ডিগ্রি লাভ করেন। ১৯৬৬ সালে তিনি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে মৃত্তিকা বিজ্ঞান বিষয়ে স্নাতকোত্তর ডিগ্রী লাভ করেন। তিনি তার শিক্ষাজীবনে ধারাবাহিকভাবে মেধার স্বাক্ষর রাখেন।

 

১৯৭৫ সালের রাজনৈতিক পট পরিবর্তনের পর তিনি ঢাকা, ময়মনসিংহ, সিলেট, কুমিল্লা, বরিশাল, কুষ্টিয়া ও রাজশাহী কারাগারে প্রায় ৫ বছর অতিবাহিত করেন। জনগণের গণতান্ত্রিক অধিকার প্রতিষ্ঠার জন্য আন্দোলন ছিল তাঁর একমাত্র অপরাধ ।

তিনি একজন অভিজ্ঞ সাংসদ এবং বিভিন্ন জাতীয় ইস্যুতে সংসদীয় বিতর্কে তার বক্তব্যের জন্য সংসদ সদস্য সহ সকল পেশার মানুষের ভালবাসা ও সম্মান তিনি অর্জন করেন।

 

বিশ্বব্যাপী ভ্রমণকারী এই জননেতা জনাব তোফায়েল আহমেদ বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সফরসঙ্গী হয়ে নিউইয়র্কে জাতিসংঘের সাধারণ পরিষদের সম্মেলন, আলজিয়ার্সে ন্যাম শীর্ষ সম্মেলন, কানাডা ও জ্যামাইকায় কমনওয়েলত সম্মেলন এবং পাকিস্তানে ওআইসি সম্মেলনে অংশগ্রহণ করেন। তিনি এশিয়া, ইউরোপ, আফ্রিকা, নরডিক এবং ল্যাটিন আমেরিকার অধিকাংশ দেশ ভ্রমণ করেন এবং মার্শাল টিটো, আনোয়ার সাদাত, পিয়েরা ট্রডু, জুলিয়াস নায়ারে,সম্রাট হিরোহিতো, লিওনিদ ইলিয়েচ ব্রেজনেভ, টুনকু আব্দুর রাজ্জাক সহ বিশ্বের বহু উজ্জ্বল ব্যক্তিবর্গের সঙ্গে ব্যক্তিগত ভাবে পরিচিত হন। ১৯৮৮ সালে তিনি বিশ্ব শান্তি সম্মেলনে যোগদান করেন।

 

তিনি ২৩ জুন ১৯৯৬ থেকে ২৮ ডিসেম্বর ১৯৯৯ সাল পর্যন্ত বাণিজ্য ও শিল্প মন্ত্রী ছিলেন। শিল্পমন্ত্রী হিসেবে তিনি ২০০১ সাল পর্যন্ত এবং শিল্প মন্ত্রণালয় সংক্রান্ত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির চেয়ারম্যান হিসেবে ২০০৯ থেকে ২০১৩ সাল পর্যন্ত দায়িত্ব পালন করেন। এছাড়া তিনি ২০১৩ সালের ২১ নভেম্বর থেকে ২০১৪  সালের ১২ জানুয়ারি পর্যন্ত গৃহায়ণ ও গণপূর্ত মন্ত্রী ছিলেন। ২০১৪ সালের ১২ জানুয়ারি থেকে অদ্যাবধি তিনি বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী হিসেবে দায়িত্বরত আছেন।

 

তিনি ইউরোপ এবং এশিয়ার অনেক দেশ সফর করেন। সিঙ্গাপুর, জেনেভা এবং সিয়াটেলে অনুষ্ঠিত ১ম, ২য় ও ৩য় আন্তর্জাতিক বাণিজ্য সংস্থা (ডব্লিউটিও) মন্ত্রী সম্মেলনে তিনি অংশগ্রহণ করেন। এসব সম্মেলনে তিনি  স্বল্পোন্নত দেশগুলোর মুখপাত্র ও সমন্বয়ক ছিলেন। জেনেভায় অনুষ্ঠিত ডব্লিউটিও সম্মেলনে তিনি স্বল্পোন্নত দেশগুলোর প্রস্তুতিমূলক সভায় সভাপতিত্ব করেন।

পারিবারিক জীবনে তিনি একজন চিকিৎসক মেয়ের বাবা। তাঁর স্ত্রী জনাবা আনোয়ারা আহমেদ গ্রাহস্থ কর্মে বাড়িতে ব্যস্ত থাকতেই পছন্দ করেন। জনাব তোফায়েল আহমেদ ও তাঁর জীবন সঙ্গিনী দুজনেই ১৯৮৮ সালে পবিত্র হজ্জ পালন করেন।

 

মোবাইলঃ ০১৭১৪০০৫৫৬৬; ইমেইলঃ tofailahmed69@gmail.com (০১.০৬.২০১৪)

 

তথ্যসূত্রঃ ওয়েবসাইট, বাণিজ্য মন্ত্রণালয়।


Share with :